Poet and Writter Khasru Pervez

খন্দকার খসরু পারভেজ (জন্মঃ ২৫ ফেব্র“য়ারি ১৯৬২, রক্তঃও+)

পদবী ও কর্মস্থলঃ কবি ও গবেষক, * কাব্য গ্রন্থ-১০টি, গদ্য গবেষণা গ্রন্থ-৬টি, সম্পাদনা গ্রন্থ -৭টি, অনুবাদ গ্রন্থ-১টি, *পরিচালক, মধুসূদন একাডেমী, সাগরদাঁড়ী, কেশবপুর, যশোর.*আইএফআইসি ব্যাংকসাহিত্য পুরস্কার ও মহাকবি মধুসূদন পুরস্কার প্রাপ্ত। স্থায়ী ঠিকানাঃ গ্রাম- শেখপুরা,ডাকঃ সাগরদাাঁড়ী,কেশবপুর, যশোর।শিক্ষাঃ ঝঝঈ-সাগরদাঁড়ী মাধ্যামিক বিদ্যালয়, ঐঝঈ -কেশবপুর কলেজ, (ঐড়হং) বাংলা ভাষা ও সাহিত্য)-মাইকেল মধুসূদন কলেজ, যশোর ফোনঃ ০১৮২২৮৩৩৫৫৫, ই-মেইলঃ khosru_p@yahoo.com

খসরু পারভেজ
মধুসূদন চর্চায় খসরু পারভেজ পরিচিত নাম।
দীর্ঘদিন ধরে কবিকে নিয়ে নানামাত্রিক লেখালেখি করে আসছেন। বাংলাদেশে মধুসূদন চর্চার জন্য প্রতিষ্ঠা করেছেন ‘মধুসূদন একাডেমী’। মধুসূদন- গবেষণায় অবদানের জন্য পেয়েছেন দেশের দুটি গুরুত্বপূর্ণ সাহিত্য পুরস্কার ‘ মহাকবি মাইকেল মধুসূদন পদক’ ও ‘ আইএফআইসি ব্যাংক সাহিত্য পুরস্কার’। তাঁর মধুসূদন- চর্চার এক শ্রমনিষ্ঠ ফসল ‘ মাইকেল পরিচিতি’। খসরু পারভেজের মধুসূদন বিষয়ক অন্যান্য গ্রন্থঃ‘ সাধিতে মনের সাধ’, মধুসূদনঃ বিচিত্র অনুসঙ্গ’,‘মাইকেল মধুসূদন দত্ত’। সম্পাদনাঃ ‘সাগরদাঁড়ী ও মধুসূদন’, মধুসূদনঃ কবি ও কবিতা’, ফুটি যেন স্মৃতি-জলে’(যৌথ), ‘বাঙালির বিস্ময়ঃ মধুসূদনের মেঘনাদবধ কাব্য’। অনুবাদঃ ‘মধুসূদনের চিঠি’ মধুকবিকে ঘিরে সম্পাদনা করেছেন দুই ডজনেরও বেশি সাময়িকী ও স্মরণিকা। তিনি মূলত কবি। তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ দশটি। মধুসূদন চর্চার বাইওে আছে চারটি প্রবন্ধ ও জীবনীগ্রন্থ। খসরু পারভেজের জন্ম ২৫ ফেব্র“য়ারি ১৯৬২, যশোর জেলার শেখপুরা গ্রামে। পিতা মৃত খন্দকার মকবুল আহমেদ ও মাতা লুৎফুন্নেছা লতা। কর্মজীবনে তিনি সোনালী ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা।

@oasisinformatics